আড়াইহাজারে অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে দুই জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে কারাদন্ড

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ  আড়াইহাজারে মেঘনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোনের সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ দুই ব্যক্তিকে আটক করে। এসময় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসী কয়েকটি ড্রেজার গুড়িয়ে দেয়। শনিবার বিকেলে মেঘনা নদীর উপজেলা ডেঙ্গুরকান্দি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আটককৃতরা হলো সোনার গাঁয়ের মঈন ও সাইফুল।

পরে তাদেরকে রাত আটটার দিকে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুরাইয়া খান প্রত্যেককে দশ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আড়াইহাজার উপজেলার ডেঙ্গুরকান্দি এলাকায় ৭/৮টি ড্রেজার দিয়ে কয়েকদিন ধরে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। স্থানীয়রা বাঁধা দেয়া চেষ্টা করলে বালু দস্যুরা অস্ত্র দেখিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করলে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মেঘনা নদীর ডেঙ্গুরকান্দি এলাকার বিশেষ অভিযানে নামে। এসময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় দুই ব্যক্তিকে আটক করে। জব্দ করা হয় কয়েকটি ড্রেজার। বিক্ষুব্দ এলাকাবাসী ড্রেজারগুলো ভেঙ্গে দেয়। পরে রাতেই ভ্রাম্যমান আদালত আটক দুইজনের প্রত্যেককে দশ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে। একটি সুত্র জানায়, সোনারগাঁও এবং আড়াইহাজার উপজেলার প্রভাবশালীরা মেঘনা নদী থেকে ড্রেজার দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বালু উত্তোলন করে আসছিল। এতে বিবির কান্দী, ইজার কান্দি, মধ্যারচর গ্রাম ভাঙ্গনের কবলে পড়ছে।

থানার ওসি মুহাম্মদ আব্দুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারী হোতাদের আইনের আওতায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।